Saturday, May 25, 2024

এখন

কল্পবিশ্ব শারদীয়া ১৪৩০ (২০২৩) ট্রু ইবুক (ইপাব ও কিন্ডল এডিশন)

গুগল প্লেবুক লিঙ্কঃ https://play.google.com/store/books/details?id=f1_eEAAAQBAJ আমাজন কিন্ডল লিঙ্কঃ https://www.amazon.in/dp/B0CLHTBS61 সরাসরি ওয়েবসাইট থেকে কিনতেঃ https://www.kalpabiswabooks.com/product/kalpabiswa-sharodiya-1430-2023-google-playbook-epub-kindle-format-ebook/

অষ্টম বর্ষ দ্বিতীয় সংখ্যা – শারদীয়া সংখ্যা – প্রচ্ছদ

  অষ্টম বর্ষ দ্বিতীয় সংখ্যা - শারদীয়া সংখ্যা প্রকাশকাল - ১১ নভেম্বর ২০২৩ অসামান্য প্রচ্ছদটি এঁকে সংখ্যাটিকে সর্বাঙ্গসুন্দর করে তুলেছেন

সম্পাদকীয়

শরতের আকাশ মেঘমুক্ত। বাতাস শুষ্ক, হিমেল। রোদের তেজ নরম। এর মধ্যেই পুজোর আয়োজন। মা দুর্গা এসেছেন আমাদের মাঝে, কোলে কাঁখে

সবুজ ট্রানজিস্টার

এক নম্বর রহস্য: ভূতুড়ে প্রাসাদে লাল চোখ দার্জিলিংয়ের নর্থপয়েন্টে এখন যেখানে রোপওয়ে হয়েছে, তার কিছু দূরে পাহাড়ের চূড়ায় একটা পুরোনো

মড়া

কী আছে মৃত্যুর পর? অস্তিত্ব, না, অনস্তিত্ব? ঈশ্বর না শয়তান? সর্বশক্তিমান শক্তিতরঙ্গ, না নিছকই অনন্ত তমিস্রা? অনুসন্ধিৎসু বিজ্ঞান-তাপসরা উদ্যোগী হলেন

গুঞ্জন

তিন মাস আগে, সুরুলগাছা পুলিস স্টেশন        “আমার কমপ্লেইনটা নিন, স্যার।”      “সে নিচ্ছি। কিন্তু আপনার টোটো তো স্টেশনের

ঢেলা

     [কৈফিয়ত: সঠিক প্যাশটিস কি না ঠিক বলতে পারব না। তবে এটা ঘনাদার গল্প—কারণ ঘনাদা আছেন, বাহাত্তর নম্বর বনমালী নস্কর

দ্বিতীয় বৈচিত্র্য

     শুরুর দিকের নখরচক্রগুলো খুব একটা কিছু কাজের ছিল না—শুধু গড়িয়ে গড়িয়ে চলা ঘিনঘিনে আর কদাকার ছোটো ছোটো যান্ত্রিক মৃত্যুদূত।

সূর্যহরণের পরে

এখন (রাত এগারোটা পাঁচ)           নিকষ কালো রাতে পাহাড়ের গা বেয়ে কোনোক্রমে উঠতে উঠতে রাকা ভাবছিল, উপলহ্রদটা আর কত

ড্রিম গার্ল

“ভগবান তোমার মঙ্গল করুক মা,” সোনালির হাত থেকে পাঁচশো টাকার নোটটা নিয়ে কপালে ঠেকাল প্রাণহরি। তারপর সেটাকে লুঙ্গির গেঁজেতে পুরে

ওঁ অগ্নিমীলে

ঠিক যেমন শীতকালের শুকনো ত্বকে নখ টানলে খড়ি ফোটে। বর্তমান সময় বুঝি অমনই শীতার্ত এবং রুক্ষ। ছুঁলে শুধুই খড়ি ফোটে,

পর্বততীর্থ জম্ভাজ

রাকার সামনে আজ অনেকখানি খোলা আকাশ। কঙ্কণ বনে বড়ো হয়ে ওঠা মেয়েটি দিশাহারা হয়ে গেল ক্ষণিকের জন্য মেঘ এবং রোদের

সবুজ বিপ্লবে

     ১           সফলতা জিনিসটা চট করে হাতের মুঠোয় আসতে চায় না, শশাঙ্কের। তিনি এক নাম না হওয়া এক

এক প্রপঞ্চর সমাপ্তি

[বি. দ্র.: এই গল্পটি কল্পবিশ্ব পত্রিকার ‘সপ্তম বর্ষ, তৃতীয় সংখ্যা’ (শারদীয়া ২০২২)-য় প্রকাশিত আমার গল্প ‘এক প্রহেলিকার জন্ম’-এর পরবর্তী অংশ।

ম্যাজেরিন

“And all my days are trances / And all my nightly dreams / Are where thy grey eye glances /

জাল বানাল যুধিষ্ঠির

লেটার বক্সের ফোকর দিয়ে ইলেকট্রিকের নীল বিলটা উঁকি মারছে। বিলটা টেনে নেওয়ার পরে দেখি তার পেছনে দুটো ইনল্যান্ড লেটার রয়েছে।

মাংসাশী ভেড়ার রহস্য

বাংলার বাইরের একখানা ইংরাজি খবরের কাগজে এক চাঞ্চল্যকর খবর বেরিয়েছে।—“এই অঞ্চলের সেনোরিয়া জঙ্গলের এক গবেষণাগারের বিজ্ঞানী তাপস সেনকে তার পোষা

ড. ওয়াগনারের পরাজয়

[ভূমিকা: এ কাহিনি লেখার কোনো ইচ্ছেই ছিল না। কী হবে লিখে? অধ্যাপক ফেডিনস্কিই যখন পৃথিবী থেকে চলে গেছেন তখন তাঁর

বঙ্কুবাবুর গল্প

পুরুষ্ট বেগুনিদের একাদশতমটিকে মুখে চালান করে বঙ্কুবাবু বললেন, ‘বেগুনি খাই বটে, তবে বেগুন আমি পছন্দ করি না। বেগুন দেখলেই আমাদের

নিষিদ্ধ ফল

পূর্বকথা      অনন্ত আঁধার বেয়ে বহে আসে তুচ্ছ সৃষ্টিবীজ           এই কাহিনির সূচনা কারিউজ নামে একটি মৃত গ্রহে। মরবার

সত্য

দশদিকে যেন যুদ্ধ শেষের নিঃশব্দ প্রহর। যেদিকে তাকাই সেদিকে কেবল রাত্রির প্রকাণ্ড নিকষ সরোবর।      কোথায় আমি? কে নিয়ে এল

আবার ফোন বাজছে

—দেখেছ! আবার মেয়েটা ফোনে কথা বলছে! এতো রাতে কার সঙ্গে কথা বলে রোজ রোজ?           —কোন মেয়েটা?      —আরে বাবা,

এত সুন্দর, এত অন্ধকার

     “রুহানা!”      মণীন্দ্র ডাকছে ওকে। কিছু দরকার নিশ্চয়! লোকটা এমনিতে চুপচাপ, অকারণ বাজে বকে না। রুহানার ক্লান্ত লাগছিল, কিন্তু

অধরা পৃথিবী

তাতিমের সামনে মাটি থেকে সিলিং পর্যন্ত আধাস্বচ্ছ দেওয়াল।      সম্পূর্ণ খোলা একটা বিস্তৃত ঘরে তার সামনে দুটো রকিং চেয়ার। ঘরটা

বাবলা বীজের সাহিত্যিক

     এবং প্রাণীভাষাবিদ সমিতির পত্রিকা থেকে উদ্ধৃত আরও কিছু অংশ           পিঁপড়ের ঢিপিতে পাওয়া পাণ্ডুলিপি      কলোনির গভীরের একটা

ফিনিক্স

লেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়, ইংল্যান্ড ২০১৬      মাইক্রোস্কোপ থেকে চোখ সরায় রেচেল। হাতের পাতা দিয়ে আলতো করে চোখ ঘষতে থাকে। যা দেখছে

পরিযায়ী

বড়োবাজারের মাকড়সার জালের মতো লেয়ারের পর লেয়ার, জড়ানো প্যাঁচানো ফ্লাইওভারের প্রত্যেকটা লেয়ারে জ্যাম। ইউসুফ তাই প্রতিবারের মতো এবারেও শিয়ালদা থেকে

অন্তিম কোড

জলখাবার খেয়ে প্রফেসার বিনোদ দেশাই ঘড়ির দিকে তাকালেন। প্রায় সময় হয়ে এসেছে। চোখ বন্ধ করে সোফায় বসে কিছুক্ষণ চিন্তা করলেন

প্রজেক্ট ইসিখাথি

প্রকাণ্ড ঘরটার ভিতর আবছা নীল আলো, এই নীল-কালো আবছায়াটা অভ্রর ভীষণ সুপরিচিত। এই ঘরে হাওয়ার চলাচলও হিসেব মেনে হয়, কিন্তু

নেক্সা

১           নবমীর দিন সকালে দক্ষিণ বেঙ্গালুরুর একটা শান্ত গলির একেবারে শেষে অম্বিকা প্রাইড অ্যাপার্টমেন্টের সামনে এসে দাঁড়াল গৌতম

হয়তো আবার

রাস্তা দিয়ে আনমনে হাঁটছিল নীহারিকা। না, ঠিক আনমনে নয়, মাঝে মাঝে হাতের উলটো পিঠটা ঘষছিল গালে। না ঘষে অবশ্য উপায়

ট্রিগার

     এক           “ডাইনোসর বার্ড। এখন প্রায় বিলুপ্ত। আসল নাম শুবিল। পাখিটার কথা শুনেছো কখনও?”      তর্জনী আর মধ্যমার

প্রত্যক্ষদর্শী

বিস্মরণের রাত           গতকাল ছেলেটা আমাকে জানালার পাশ থেকে সরাতে ভুলে গিয়েছিল। গতকাল মানে অবশ্য চলিত অর্থে গতকাল নয়।

নীল কমলের খোঁজে

     এক           টিকলিদের গ্রামটা খুবই নিরিবিলি। পাহাড়ের গায়ে প্রকৃতির স্পর্শ মাখা একটা ছোট্ট গ্রাম। গ্রামের নামটাও সুন্দর,নীল পোখরি।

পোয়াবারো

নামে কিবা আসে যায়, এটা যে একেবারেই কথার কথা তা বিমলের চেয়ে আর বেশি কে জানে। নাম যদি বিদঘুটে হয়

রোমানবের গল্প

     ০০১ সাহিত্য সভা           সবুজ! চারিদিকে মসৃণ সবুজ! গাছপালা সবুজ, নরম ঘাস সবুজ, ভিজে মাটির ওপরে জমে থাকা

ফাঁদ

এমন এক বিপদ থেকে তাদেরকে কে উদ্ধার করতে পারবে? বিজ্ঞান একাডেমির প্রধান দ্রিষিন মনে মনে ভাবলেন। ছেলেবেলায় প্রচুর গল্প পড়েছেন।

The Churchyard Girl

To the Sunday school children, she is a shadow in the window, a welcome distraction from the humdrum classes. Her

ব্যোমকেশ বক্সী বৈজ্ঞানিক ছিলেন না

লন্ডন শহরের বিখ্যাত কনসাল্টিং ডিটেকটিভ শার্লক হোমস সাহেবের সঙ্গে কলকাতার ব্যোমকেশ বক্সীর আলগা সাদৃশ্য যতই থাকুক হোমস সাহেবের মতো বৈজ্ঞানিক

The Decadence of Humanity: Double Dose of Dystopias

Science Fiction has been successful in instigating imaginary futures for humanity. The two most distinctive features include utopia and dystopia.

The Rise of AI Art: Shaping the Future of Creativity

Artificial Intelligence (AI) has made remarkable advancements in recent years, revolutionising various industries and changing the way we live and

error: Content is protected !!
Verified by MonsterInsights